কৃত্রিম সতীচ্ছদ

আপনার Hymen কি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং আপনি  কি এই সমস্যার দ্রুত এবং মূল্য সাশ্রয়ী একটি  সমাধান খুঁজছেন?

                                 
 সেবা নম্বর
LINE ID: virginiacare

 artificial hymen kit bangladesh

মনোযোগ: আমাদের কাছে জাল বিক্রি হয়ে গেছে যে ইঙ্গিত!


এই পৃষ্ঠায় আমরা বিবাহের রাতে আপনার কুমারীত্ব নিশ্চিত করার জন্য পণ্য উপস্থাপন করা হবে।

  • প্রথমত, আসুন আমরা আপনাকে বলি, আপনি এই সমস্যায় একা ভুগছেন না✅
  • বিশ্বের অনেক নারী, আপনার মত একই সমস্যায় ভুগছেন✅
  • কুমারিত্ব হারিয়ে গেছে, কিন্তু বিবাহের রাতেই আপনি কুমারিত্ব নিশ্চিত করতে বাধ্য✅
  • এই পরিস্থিতিতে আমাদের কাছে আপনার জন্য সুসংবাদ রয়েছে✅
  • আমাদের "ভার্জিনিয়া কেয়ার" এর পণ্যগুলোর মাধ্যমে অনেক নারীই বিয়ের রাতে তাদের তাদের কুমারিত্ব প্রমাণ করার ব্যাপারে সাহায্য সাহায্য পেতে পারেন✅
  • ঠিকই পড়েছেন, আপনি এখন সত্যিই আপনার সমস্যা সমাধান করতে পারবেন✅
  • কেউ কখনো জানতে পারবেনা যে আপনি আমাদের পণ্যগুলির মাধ্যমে মাধ্যমে আপনার সমস্যার সমাধান করেছেন✅
  • কারণ সবকিছুই গোপনে পরিচালনা করা হবে এবং আপনার পরিচয় গোপন থাকবে✅
  • পণ্যগুলো জার্মানিতে প্রাকৃতিক উপাদান প্রস্তুতকৃত থেকে এবং এগুলোর এগুলোর কোন রকম পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই✅
  • কোন ডাক্তারের কাছে যেতে হবে না, আপনি নিজে নিজেই পণ্যগুলি ব্যাবহার করতে পারবেন ✅
কৃত্রিম কুমারী ইনফোগ্রাফিক

কুমারীত্ব হারিয়েছেন ...

 

দুর্ভাগ্যবশত, এখনও অনেক দেশ এবং অনেক সংস্কৃতি  আছে, যেখানে একজন মহিলার স্ব সংকল্প /  নিজের জন্য কিছু স্থির করা নিষিদ্ধ!

ইউরোপ, আফ্রিকা, এশিয়া বা আমেরিকাতে, পারিবারিক চাপে বাধ্য হয়ে  অল্পবয়সী নারীদের কুমারী অবস্থায় বিয়ে করাটা একটা বাস্তবতা!

 

কিন্তু এখনকার খোলামেলা সমাজে, যৌনতা এড়িয়ে চলা  সবসময় সম্ভব হয় না। যৌনতা ক্রমাগত বেড়েই চলেছে।  সবাই প্রাকৃতিকভাবে যৌন কামনা অনুভব করে এবং চেষ্টা করে দেখতে চায় যে এটা কেমন ।   

 

ভুক্তভুগীদের থেকে প্রাপ্ত অভিজ্ঞতা থেকে আমরা জানি যে  হস্তমৈথুন বা petting এর কারনে আপনার হাইমেন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে আপনি  ভয় পাচ্ছেন ।   

 

একারনেই আপনি আপনার হাইমেন কিভাবে আবার ঠিক করতে পারবেন, সেটার একটা সমাধান  ইন্টারনেটে খুঁজছেন ।  

বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই নারীরা সচেতনভাবেই প্রথম প্রেমের সময়  তাদের কুমারীত্ব হারান,  কারণ তারা  তখন বিশ্বাস করেন যে, তারা তাদের জীবনের কাঙ্ক্ষিত পুরুষটিকে খুঁজে পেয়েছেন ।

 

এই কারনে তারা  বিয়ের রাত কিংবা এই কাজের পরিণতি সম্পর্কে চিন্তা করেন না ।  কারন, এই ভালোবাসার প্রতি তাদের বিশ্বাসের ফলে তাদের মনে কোন সন্দেহ থাকে না । 

 

দুর্ভাগ্যবশত, ধর্ষণের ঘটনাও ঘটে,  যদিও  তা সবসময় গোপন থাকে, তবুও মানসিকভাবে  আঘাতপ্রাপ্ত  এসব মহিলারা তাদের কুমারীত্ব প্রমাণের জন্য  আরো মানসিক চাপে থাকেন ।

 

কিন্তু কখনও কখনও, সবকিছু অন্যভাবে  ঘটে, এবং  একটা দুঃখজনক বিবাহবিচ্ছেদ হয়ে যায়।  

আগে,  সে তো প্রায় বলতে গেলে বিবাহিতই,  এটা বিশ্বাস করে যৌনতা  করেছিলো , কিন্তু তারপর, বিশ্বাস ভেঙ্গে যাওয়ার পর নিজের এই সমস্যা নিয়ে নিজেকে একা একাই ভাবতে হয়।  

 

বর্তমানে, সময় দ্রুত ফুরিয়ে যাচ্ছে, কারন এরকম সংস্কৃতি থেকে আসা মহিলাদের  বিয়ের আগে পর্যন্ত কড়া নিয়ম মেনে চলতে হয়। 

এসব বিয়ে সাধারনত পারিবারিকভাবে আয়োজন করা হয়। 

 

এই মহিলাদের মানসিক চাপ ধীরেধীরে বাড়তে থাকে, এবং তারা একটি সমাধান খুঁজতে শুরু করেন।

এর একমাত্র সমাধান হিসেবে সবাই হাইমেন সেলাই করার কথা জানে ।  এই পদ্ধতিটি অনেকে অনেক নামে ইন্টারনেটে খুঁজে থাকেন, কিভাবে কুমারিত্ব ফিরে পাওয়া যায়, সেটা জানার জন্য।  

 

চিকিৎসাবিজ্ঞানে  এর নাম হচ্ছে  হাইমেনোরাফি, হাইমেনোপ্লাস্টি বা হাইমেন পুনর্গঠন সার্জারি । 

কিন্তু তারা যখন চিন্তা করে যে তাদের কুমারীত্ব হারিয়ে ফেলেছে, তখন তারা মরিয়া হয়ে অনেক নাম ব্যাবহার করে ইন্টারনেটে খোঁজ করা শুরু করে।  যেমন,  হাইমেনোপ্লাস্টির পর, হাইমেন রিপেয়ার /মেরামত, হাইমেন রিস্টোরেশন/ হাইমেন পুনর্গঠন, কুমারীত্ব পুনরুদ্ধার, কুমারীত্বের সার্জারি, কুমারীত্ব ফিরে পাওয়া  ইত্যাদি।

 

হাইমেন পুনর্গঠন এর পদ্ধতি অত্যন্ত ব্যায়বহুল (৪০,০০০ - ৩,০০,০০০ টাকা পর্যন্ত হতে পারে) ,  কষ্টকর এবং অস্বস্তিকর। এছাড়া অপারেশনের পর হাইমেনে রক্তক্ষরন হবে, এমন কোন নিশ্চয়তা নেই। 

 

যদিও বর্তমান সময়ে এই অপারেশনের তেমন প্রচলন নেই।  যাইহোক, বিয়ের রাতে কুমারীত্ব প্রমাণ করার জন্য  ছুরি-কাঁচির  নিচে শুয়ে আপনার হাইমেন সেলাই করাতে আপনি বাধ্য, এমন কোন কথা নেই। 

 

Ivirginal, ভার্জিনিয়াকেয়ারের পণ্য কৃত্তিম হাইমেন এবং যোনী টাইট করার যেল কে ধন্যবাদ। এগুলোর মাধ্যমে  বিয়ের রাতে  সহজে এবং সস্তায় বিছানার চাদরে প্রয়োজনীয় রক্তের দাগ তৈরি করা সম্ভব।  যার ফলে খুব সহজেই সমস্যার সমাধান করা যায়। 

 

এক্ষেত্রেও   অল্পবয়সী নারীরা সার্চ ইঞ্জিনগুলিতে  অনুসন্ধান করার জন্য বিভিন্ন নাম আবিষ্কার করেছে , যেমন: কৃত্রিম হাইমেন কিট, কুমারীত্ব ফিরে পাওয়ার কিট, হাইমেন রিপেয়ার/ মেরামত  কিট, কুমারীত্ব প্রমাণ করার কিট, হাইমেন পুনরুদ্ধারের কিট এবং আরও অনেক কিছু।

 

আগেই একটা কথা জানিয়ে রাখা দরকার!  এই পণ্যগুলো পিতৃতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে সমর্থন করার জন্য ডিজাইন করা হয় নি, বরং মহিলাদের মর্যাদা রক্ষা এবং কঠোর নিষেধাজ্ঞা থেকে তাদেরকে রক্ষা করার জন্য একটি বিকল্প উপায় হিসেবে ডিজাইন করা হয়েছে।


আমাদের পণ্যগুলো আসলে কি ?

কুমারী

 

ভার্জিনিয়াকেয়ারের পণ্য সমস্যার  নির্ভরযোগ্য সমাধান হিসাবে পরিচিত

 

কুমারিত্ব প্রমাণ করার জন্য কৃত্রিম হাইমেন

 

আমরা একটি কৃত্রিম হাইমেন সম্পর্কে কথা বলছি, যা এমন একটি  সেলুলোজ দ্বারা তৈরি, যেটি নিজে নিজে মিলিয়ে যাবে।

 

এর ভিতরে এমন একটি বিশেষ পাউডার দেওয়া হয়েছে, যার রঙের প্রভাব মানুষের রক্তের মতই।

 

এই কৃত্রিম হাইমেন টি যোনির আঙুল সমান গভীরে  প্রয়োগ করতে হবে যৌন মিলনের প্রায় ৩০ মিনিট আগে । তবে সর্বোচ্চ ২ ঘন্টা আগে প্রয়োগ করা যাবে।

 

যৌন মিলনের সময়, উপাদানটি সম্পূর্ণরূপে গলে গিয়ে যোনির তরলের সাথে মিশে যাবে এবং তারপর সঠিক মুহুর্তে, সঠিক পরিমাণে কাঙ্ক্ষিত রক্তক্ষরণ হিসেবে বের হবে ।


যোনি কন্ডিশন জেল

 

যোনি কে টাইট/ আঁটো করার জন্য - REVITALIZE100

 

যোনি কে টাইট করার জন্য আমাদের রয়েছে  Revitalize100.

এটি একটি যোনি টাইট করার জেল, যা পছন্দসই মুহূর্তের ১-২ সপ্তাহ আগে থেকে প্রয়োগ করতে হয়।

 

ঘুমাতে যাওয়ার আগে, দৈনিক ১ বার যোনির প্রবেশদ্বার এবং labia তে এই জেল প্রয়োগ করবেন, এবং অত্যন্ত কার্যকর এই জেল আপনার যোনিমুখ টাইট করে এর কার্যকারিতার প্রমাণ দেবে!


কোন রকম মেডিকেল সার্জারি ছাড়াই খুব সহজ সমাধান

কৃত্রিম হিমম্যান

এটি সর্বোত্তম চিকিৎসা প্রযুক্তি অনুযায়ী উন্নত করা হয়েছিল। এটি সর্বোত্তম চিকিৎসা প্রযুক্তির সাথে কাজ করে আমাদের দুটি পণ্য হতে পারে আপনার কুমারিত্ব প্রমাণ করার সম্ভাব্য সমাধান ! এর মাধ্যমে আপনার অনেক টাকা সাশ্রয় হবে এবং আপনি মেডিকেল পদ্ধতির ঝামেলা থেকে রক্ষা পাবেন! এগুলো ১০০% নিরাপদ এবং আমরা আপনাকে একটি সন্তোষজনক ফলাফল এর  নিশ্চয়তা দিচ্ছি।

সবকিছু গোপন এবং বেনামী ভাবে সম্পন্ন হবে।

হেনম্যান ভাঙা

 

 গুরুত্বপূর্ণ তথ্য:

ध्यान से सोचो, आप इसे कहां आदेश देंगे!

আমাদের সাইট McAfee সিকিউরিটি ইন্টারন্যাশনাল দ্বারা প্রত্যয়িত এবং আপনার আদেশ নিরাপদ!

অনেক ওয়েবসাইট খুব সস্তায় বা অত্যধিক দামে পণ্য প্রদান করছে, কোম্পানির গুরুত্বপূর্ণ কোন তথ্য ছাড়াই!

 আপনার সন্দেহ হলে যোগাযোগের কোন উপায় নেই এবং পণ্যের গুণমান নিশ্চিত নয়। কৃত্রিম রক্ত যদি বাস্তবসম্মত হয় না, তবে তা বিপদে ফেলতে পারে! অতএব, পণ্য মান গুরুত্বপূর্ণ এবং না সস্তা দাম। এই পৃষ্ঠায় আমরা শুধু ব্র্যান্ড ভার্জিনেয়ার থেকে আসল পণ্যগুলি সুপারিশ করছি!

 ভার্জিনিয়াকেয়ারের পণ্যগুলি ২010 সাল থেকে আন্তর্জাতিকভাবে সফলভাবে প্রদত্ত হচ্ছে এবং জার্মানিতেও ফার্মেসীগুলিতে অনুমোদিত। ভার্জিনিয়াকেয়ারের পণ্যগুলি নারীদের অধিকার কর্মীদের একটি ইউরোপীয় টিভি ডকুমেন্টারীতেও উপস্থাপিত হয়েছিল।

 

১০০% সহজ | ১০০% নিরাপদ | ১০০% সুলভ

English
English